সোমবার, ১৩ Jul ২০২০, ০২:২৭ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
শিরোনাম :
করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট কওমী মাদরাসা খুলতে আলেমদের সাহসী ভূমিকা রাখতে হবে: নদভী পাকিস্তানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত করোনায় মুসলমান নাগরিকদের সঙ্গে নিষ্ঠুর আচরণ করছে শ্রীলঙ্কা সরকার প্রবাসীদের জন্য বিনামূল্যে ইকামার মেয়াদ তিনমাস বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন সৌদি সৌহার্দ্য বজায় : ঈদ হোক মোক্ষম করোনা ভাইরাস থেকে আমরা আসলে যে শিক্ষা নিতে পারি -বিল গেটস প্রাকৃতিক দুর্যোগে রাসূল সাঃ যে আমল করতেন এবং তাগিত দিতেন ইতিকাফ রব্বে কারীমের সঙ্গে আলাপনের মহান সুযোগ শবে কদর; সাতাশের রাতই কি সেই দিন? ১২মে দেখা যাবে সুরাইয়া তারকা: মিলবে কী করোনা থেকে মুক্তি? আলেম লেখকদের পাশে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশ ইসলামী লেখক ফোরাম আল্লামা আহমদ শফী ও শীর্ষস্থানীয় আলেমদের ধন্যবাদ সারাদেশের মসজিদ উন্মুক্ত করে দেয়ার জন্য যে সকল শর্তসাপেক্ষে খুলে দেয়া হলো দেশের সকল মসজিদ মসজিদে নামাজ আদায় করা যাবে আগামীকাল জোহর থেকে
সৌদি ধনভাণ্ডারের ২৩,৩০০ কোটি ডলার উধাও

সৌদি ধনভাণ্ডারের ২৩,৩০০ কোটি ডলার উধাও

সৌদি

সৌদি আরব অর্থ কর্তৃপক্ষ বা এসএএমএ’র প্রকাশিত প্রতিবেদনের স্বীকার করা হয়েছে যে, বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজের ক্ষমতা গ্রহণের মাত্র পাঁচ বছরের মধ্যে বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয় থেকে ২৩ হাজার ৩০০ কোটি ডলার সমপরিমাণ অর্থ উধাও হয়ে গেছে।

ইয়েমেন যুদ্ধ, পশ্চিমা দেশগুলো বিশেষ করে আমেরিকার কাছ থেকে অপ্রয়োজনীয় ব্যাপক অস্ত্র-সম্ভার ক্রয় এবং নিওম নামে পরিচিত ভবিষ্যৎ-নগরীর প্রকল্প খাতের খরচের যোগান দিতে গিয়ে বিশাল অংকের এ অর্থ নজিরবিহীন ভাবে সৌদি ধনভাণ্ডার থেকে উধাও হয়ে যায়।

২০১৫ সালের জানুয়ারিতে ৮৪ বছর বয়সী বাদশাহ সালমান সিংহাসনে বসেন। একই বছরে সৌদি বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয়ের পরিমাণ ছিল ৭৩ হাজার ২০০ কোটি ডলার।

কিন্তু ২০১৯ সালে একই ভাণ্ডারে রয়েছে মাত্র ৪৯ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। অর্থাৎ পাঁচ বছরে এ ভাণ্ডার থেকে উধাও হয়ে গেছে ২৩ হাজার ৩০০ কোটি ডলার। গড়ে প্রতিবছর এ অর্থ-ভাণ্ডার থেকে চার হাজার ৬৬০ কোটি ডলার কমেছে।

গত পাঁচ বছরে সৌদি বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয় থেকে যে পাহাড় পরিমাণ অর্থ হ্রাস পেয়েছে তা এমইএনএ নামে পরিচিত মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকার দেশগুলোর মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বা জিডিপির সমপরিমাণ। পরিমাণের দিক থেকে তিউনিশিয়ার বাৎসরিক বাজেটেরও ১৮ গুণ বেশি এ অর্থ।

বাদশাহ সালমান ক্ষমতায় বসার মাত্র তিন মাসের মাথায় ইয়েমেনের বিরুদ্ধে সৌদি জোট আগ্রাসন শুরু করে। এ দরিদ্র দেশটির বিরুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট গত পাঁচ বছর ধরে অব্যাহত যুদ্ধের পরও সেখানে বিশেষ ফয়দা হয়নি তাদের।

কার্যত ইয়েমেন যুদ্ধের চোরাবালিতে বেশ ভালো ভাবেই আটকে গেছে রিয়াদ। পিতা ক্ষমতায় বসার অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদটি বাগিয়ে নেন যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান

সৌদি ক্ষমতার প্রধান নেপথ্য নায়ক হিসেবে সালমানকে গণ্য করা হয়। ইয়েমেন যুদ্ধও চলছে তারই নির্দেশে।

এদিকে, বিশ্বব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী সৌদি মাথাপিছু আয়ও উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে। ২০১২ সালে এর পরিমাণ ছিল, ২৫ হাজার ২৪৩ ডলার। কিন্তু ২০১৮ সালে তা কমে এসে দাঁড়িয়েছে ২৩ হাজার ৩৩৮ ডলারে।

বর্তমানে তেল-বাজারের বিপর্যয়ের আগেই সৌদি বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয় থেকে হাওয়া হয়ে যায় ব্যাপক অর্থ।

করোনার বিশ্ব মহামারি থেকে সৃষ্ট তেল-বাজারের বিপর্যয় আরবের জন্য আরো অনেক বড় আর্থিক দুর্গতি বয়ে আনবে বলেই নিশ্চিত আশংকা করা হচ্ছে। পার্সটুডে।

সংবাদটি শেয়ার করে অন্যদের জানার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019-2020.somokalin24.com
Desing & Developed BY NewsRush